আজ ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী

শিরোনাম:

   কুষ্টিয়ায় আরও দুই জনের মৃত্যু    এখন ১২ বছর হলেই টিকা: প্রধানমন্ত্রী    পাঠক সংবাদ পত্রিকার প্রতিনিধি সুমনের বাবার মৃত্যুতে পত্রিকা পরিবারের শোক    দরিদ্র বাবা-মার মেয়ে রুমা হারিয়ে গেল মামা ফরহাদের কারনে    কুষ্টিয়া-পাবনা মহাসড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ চরমে     শাশুড়ি-স্বামীর অত্যাচারে গৃহবধূর আত্মহত্যা    টিউশনির চৌদ্দ বছরে পদার্পণ, বেতনের জন্যও কেঁদেছি : রাসেল ইব্রাহীম    সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়া- জেইউকের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনে নব নির্বাচিত কমিটি ঘোষণা    খাট থেকে পড়ে প্রাণ গেলো ১ বছরের শিশু আজিমের    শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার তারিখ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী    চাচার অবৈধ প্রেমের সুত্র ধরে মাদরাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা    ক্লিন ফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেল চালাতে দেওয়া হবে না : তথ্যমন্ত্রী

নেতা হতে চান?

।।।মোঃ আলী আক্কাস তালুকদার (অবঃ) সেনা কর্মকর্তা।।।

আপনি কি নেতা হতে চান? নেতা উপাদী পেতে চান? খুব ভাল কথা, তবে নেতা উপাদী পেতে গেলে আপনার কি করতে হবে তা কি জানা আছে? নেতা মানে কি বুঝেন? যদি না-ই-বা বুঝেন তবে শুনুন, আমিই বলছি। নেতা মানে একটা বিশাল মজবুত স্তম্ব, পাউন্ডেশন, বিশাল বটবৃক্ষের ন্যায় ছাঁয়া দানকারী, নেতা মানেই অনেকের আশ্রয়ের স্থল, নেতা মানেই শান্তি- শৃংখল, নেতা মানেই জঞ্জাল দুর করার এক মহান ব্যক্তি, নেতা মানেই সকলের মনের ভক্তি, বিস্বাস, শ্রদ্ধা, সন্মান, আস্তা ভাজনহবার (কুড়িয়ে নেয়ার) অধিকারী/অধিকারিনী। যেই ব্যক্তি সব লোভ, ক্ষোভ, হিংসা বিসার্জন দিয়ে পরকে আপনের চাইতেও আপন করে হৃদয়ে ভরে, তাকেই প্রকৃত নেতা বলে। নেতা হতে টাকা লাগে না, সর্বোচ্চ ডিগ্রী লাভ করার প্রয়োজন হয়না। শুধুই প্রয়োজন নেতৃত্বগুণ, নেতৃত্বদান, নেতৃত্বের নীতি-রীতির কলাকৌশল, আত্মসংযমী, পরহিংসা, পরলোভ হজম করার অধিকারী/ অধিকারিনী। নেতা মানেই নীতিতে অটল, নেতা মানেই সমাজ গঠনের মহান কারীগর, নেতা মানেই বিপদ হতে উদ্ধার করার আরেক নাম, নেতা মানেই আশ্রয় কারী। নেতা মানেই শান্তির আশ্রয় কেন্দ্র। একজন নেতার বর্ননা দিতে গেলে কখন যে শেষ হবে তা আমার জানা নেই। তবে নেতা সন্বন্ধে সংক্ষিপ্ত ভাবেই লিখার চেষ্টা করছি। একজন নেতা ঘর হতে শুরু করে বাড়ী, বাড়ী হতে গ্রাম/ মহল্লা, মহল্লা হতে ওয়ার্ড, ওয়ার্ড হতে ইউনিয়ন। ইউনিয়ন হতে থানা, থানা হতে জেলা, জেলা হতে কেন্দ্রিয় দলের সদস্য হয়ে নানাহ্ দায়ীত্ব পালন করেন, পরিচিত লাভ করেন। যার দরুন সমগ্র দেশ তাকে চেনেন জানেন। নেতা মূলতঃ দুই প্রকার/ ধরনের, যেমন- (১)বিখ্যাত/উত্তম ( ২) কূখ্যাত/ অধম। এই দুইয়ের তফাৎ সীমাহীন, উত্তম ব্যক্তিগন(নেতাগন) স্থান পাবেন জনগনের হৃদ মন্দিরে, অদম ব্যক্তিরা (নেতারা)থাকেন শুধুই ঘৃনার মাঝে। যাহারা সমাজ তথা মানুষের উন্নতির কল্যানে কাজ করেন তাহারা (নেতাগন) ধাপে ধাপেই উন্নতির সিঁড়িবেয়ে উপরে উঠবেন। সমগ্রদেশ বাসির আস্থাভাজন হয়ে উঠবেন। যথাপযোগী মর্যাদার আসনে সমাদরে বসাবেন জনগন। একজন প্রকৃত নেতার গলে সকলেই পড়াবেন জয়মাল্য। যার দরুন পর্যায়ক্রমে তিনি(নেতা) সকলের মন মন্দিরে স্থান পেয়ে যান। মানু্ষ তথা সমাজের তরে তার অন্যরকম চিন্তায়-চেতনা, দ্যান- ধারনা লালিত হয়। তার দ্বারা কাহারো অনিষ্ঠ হয়না, হতে পারে না। একজন নীতিবান নেতার মনে কখনো হিংসা অহংকার, লোভ ক্ষোভ রঙো- লালসা স্থান পায়না। কারন তিনি জন স্বার্থে, মানুষের শুভ কল্যানে, সব কূ-নেশা বর্জন করে, সমাজ তথা মানুষগনকে তার পরম আত্মার আত্বীয় করে হৃদয়ে ভরে ভক্তির সহিত গ্রহন করতে সক্ষম হবেন। এটা করতে একজন নেতার টাকার প্রয়োজন হয়না, প্রয়োজন শুধুই নিজের মনের কূ- নেশা বর্জন করার মানসিকতা। এতো টুকুন যেই জন বিসার্জন দিতে পেরেছেন,পারবেন তিনি নিঃসন্দেহে সকলের অন্তরে স্থান করে নিবেন। তিনি যেই দলই করেন না কেন, সবাই একজন সৎ নিষ্ঠাবান মানুষকে সন্মান করবেই করবেন। তার মনের অজান্তেই তিনি সকলের আস্থা ভাজন হয়ে উঠবেন। যার যার এলাকায় তার সুনাম ছড়িয়ে পড়বেই। যখন একজন নেতা একটি ঘর হতে সমগ্রদেশ পর্যন্ত পরিচিতি লাভ করেন, সুখ্যাতি অর্জন করেন, তখন সবাই তার প্রতি আস্থা ভাজন হয়ে উঠেন। তাকে ভাল বাসতে শুরু করেন, আপনের চাইতেও আপন করে হৃদয়ে জড়িয়ে রাখেন। তার জন্য স্বেচ্ছায় জীবন বিলিয়ে দিতে পারেন। আপন সন্তানের ন্যায় প্রিয়’ নেতাকে বুকে জড়িয়ে রাখেন। তার জন্য সব কিছু করতে রাজি থাকেন। এই মন মানসিকতা যিনি লালন করেন তিনিই প্রকৃত নেতা, প্রকৃত মানুষ দরদী, সমাজ দরদী, দেশের তরে নিবেদিত প্রান। যার সুনাম সমগ্র দুনিয়া জুড়ে ছড়িয়ে পড়বে, মারহারা মারহাবা ধ্বনিতে। লাল গালিছায় আমন্ত্রন পাবেন দেশে দেশে। অসীম সন্মানিত হবেন দুই জগতের তরে। তার নামই থাকবে সকলের হৃদয়ে ভরে। শুভ কামনা রইলো প্রকৃত নেতার তরে।।

★একজন-জননেতার নৈতিকতার অবক্ষয় হলে যা ঘটার সম্ভাবনা থাকেঃ–
হ্যাঁ আমিও স্বীকার করছি একজন মানুষ কিছুতেই সকলের মন জয় করতে পারেন না, কোনো ক্রমেই সম্ভব না। তবে যেহেতু আমরা মানুষ, বিবেক- বিবেচনা, জ্ঞান- বুদ্ধিতে পরিপক্ষ করেই আমাদের সৃষ্টি। এমনটা আর কোনো প্রানীর মধ্যে নেই। ভাল-মন্দ, আসল নকল বুঝবার যে জ্ঞান এটা সকল সূস্হ্য মস্তিস্কের মানুষগনই উপলব্ধি করতে পারেন। আশা করি এ বিষয়ে সকলেই একমত পোষন করবেন। এ-ক্ষেত্রে বুঝাতে চেয়েছি কে ভাল? কে মন্দ? তা বুঝা যায় একজন মানুষের আচার- আচরনে, কাজ- কর্মে, রীতি-নীতিতে। যদি কেহ এ-গুলোর মধ্যে নীতি-রীতির ব্যতিক্রম কিছু করেন, তবেই তার প্রতি সকলের আস্থা হারাতে শুরু করবে। অমানুষ, কূখ্যাত, খ্যাতিতে ভূষিত হবেন, আপনজনও পর হবেন। সবাই তাকে অমানুষ বলেই আখ্যা দিবেন। নানাহ নামে কূ-রটাবেন। ধীরে ধীরে কাছ থেকে দুরে সরে যাবেন। বিস্বাস হারাবেন। যতই থাকুক তার ধন- দৌলত হীরা জহুরত। হয়তো ক্ষনিকের তরে নেতৃত্বের অধিকারী হতে পারেন, তবে দীর্ঘ স্থায়ী নয়। তাকে দেখলে সকলের মনেই থাকবে সংশয়! কিংবা ভয়। কোন নেতাকে দেখে যদি জনগন ভয় পায় তবে বুঝতে হবে, ঐ নেতার নেতৃত্ব দীর্ঘ স্থায়ী হবেনা। তার কাছ থেকে সাধারন জনগন দুরে সরে যাবেন অনৈতিকতার কারনে। হউক তিনি যত বড় নামী- দামী খান্দনী,অর্থের অধিকারী/অদিকারিনী। একজন জন নেতা হওয়া যতই কঠিন, তার চাইতেও কঠিনতর হচ্ছে নেতৃত্ব ধরে রাখা। জনগনের আস্থা টিকিয়ে রাখা। জনগনের আস্থা টিকিয়ে রাখতে হলে একজন নেতা, তার নিজের সাথেই যুদ্ধ ঘোষনা করতে হবে, এবং নিজের সাথেই নিজেকে জয়লাভ করতে হবে। হয়তো প্রশ্ন জাগবে অনেকের মনে, এটা কি করে সম্ভব হবে! হ্যাঁ তাই করতে হবে একজন প্রকৃত সমাজ দরদী নেতাকে। এটা হচ্ছে আত্মসংযমী হওয়া। যখন একজন নেতা সুখ্যাতি অর্জন করার পথে পদারপন করেন, তখন সবই মিলবে যখন- তখন, যাহা চাইবেন সবই পাবেন। এই চাওয়া-পাওয়ার অন্তরালে লুকিয়ে থাকা লোভ- লালসা, ক্ষোভ- পরহিংসা ঘাত-প্রতিঘাত হজম করার, অর্থের লোভ পরিহার করার ক্ষমতা অর্জন করতে না পারলে। আপনি নেতা বলে নিজেকে দাবী করতে পারবেন বটে! তবে জনগন আপনাকে কূ-খ্যাত নেতা বলে উপাদী দিবেন। যার ফল কিংবা পরিনতি মোটেই ভাল হবেনা। আপনি ছিটকে পড়লেন ডাষ্টবিনে। নিজের কপালে নিজেই পেরেক মারলেন। সব খ্যাতি চোখের পলকেই নিমিষ হয়ে যাবে। যদি একজন নেতার নৈতিকতার অবক্ষয় ঘটে নেতৃত্বে। এই সকল বিষয় গুলো বিবেচনা করে যিনি নিজেকে ধরে রাখতে সক্ষম হবেন, তিনিই জয়ের মুকুট অর্জন করতে পারবেন। তা-না হলে সবই হারাবেন রাজনীতিতে। যতসব বিপদ চেপে বসবে আপনার ঘাড়ে। না সমাজ,না সংসার, পালিয়ে বেড়াবেন বনে জঙ্গলে,দেশ- দেশান্তরে পুলিশের ভয়ে। কত ধিক্কার পাবেন যার তার ধারে, শুধুই নিজের বদ কর্মের ফলে। একদিন আপনার কথায় যারা উঠ-বস করতেন তাহারাই ডিল ছুড়বেন আপনার গাঁয়ে। কতযে তিরস্কার করবেন প্রতি পায়েপায়ে। এতো সব যন্ত্রনা সহিবেন কেমন করে? একটু ভাবুন বসে বসে নীরবে- নিরলে। প্রকৃত নেতার পর বলতে কেহই থাকেনা সমাজে। যদি সমাজকে বুঝতে পারেন আপনের মতন ভালবেসে। পুলিশ পুলিশ ভয় থাকবেনা প্রকৃত নেতার মাঝে। কথাটি স্মরন রাখবেন সকলে। সহজ সরলামনা মানুষগনকে ভূল. পথে পরিচালিত করে তাদের জীবন নষ্ট করবেন না কিছুতেই। অনেকেই রাজনীতির মর্ম না বুঝেই নেতা নেতা ভাব করে, কেহ কেহ অপকর্ম করে বদনাম রটায় দলের তরে। জনগনের মনে কষ্ট পায় এই সকল কারনে। সুতরাং সর্ব দিকে সতর্ক থাকবেন, প্রকৃত নেতাগনে। তা-না হলে ভোট গননার পরে কতযে যাতনা জুটবে নসিবে! সহিবেন কেমনে? সুতরাং সাবধান! মনে মনে। আজ ক্ষমতার বলে অপমান লাঞ্চিত করবেন বিরোধী দলের তরে। কাল ক্ষমতা হারালে প্রস্তুত থাকবেন লাঞ্চনা পাবার মনে। আজ আমার, কাল তোমার। আমি পেশি শক্তির কারনে যদি অপরের প্রতি জুলুম করি, নিশ্চয়ই তার প্রায়চিত্ত ভোগ করতেই হবে। যার কারনে কেহ কেহ দলকরে ঘুমায় নিজের ঘরে সু- কর্মের ফলে। আবার কেহ কেহ পালিয়ে বেড়ায় বনে জঙ্গলে,দেশ-দেশান্তরে শুধুই ক্ষমতার অপব্যবহারের ফলে। যার বাস্তব প্রমান দেখছি সকলেই। সুতরাং নেতা হবেন মানুষকে বাঁচাতে, সমাজকে টিকিয়ে রাখতে। বঞ্চিত মানুষের ন্যার্য্য পাওনা টুকু পৌচাতে তার নিকটে। এর ব্যতিক্রম হলে, ক্ষমতা হারালে সমাজ আপনাকে ধাওয়া করবে ব্যাবিচারী- অত্যাচারী বলে। বিন্দুমাত্রও স্থান পাবেন না কাহারো ধারে। এই সবই বুঝবেন ক্ষমতা হারালে। সুতরাং বিরোধী দলকে মূল্যায়ন করবেন মানবতার গুনে, তার সুফল পাবেন ক্ষমতা হারালে, নেতা হবেন সকলের তরে, সমাজের তরে,দেশের কল্যানে। তবেই থাকবেন সকলের মনেমনে, যতই বিপদ আসবে কবু সব যাবে নিপাতে। জনগনই থাকবে আপনার সাথে। এর চাইতে বড় শক্তি আর কিছুতে আছে? সুতরাং সংযমী হবেন নিজের সাথে সুখে থাকেন যাহাতে। শুভ কামনা রইলো প্রকৃত নেতাগনের তরে।।

লেখক পরিচিতিঃ
সভাপতিঃ-স্বপ্নীলকন্ঠ সাহিত্য সাংস্কৃতিক পরিষদ- কচুয়া উপজেলা শাখা।

পাঠক কলাম

টিউশনির চৌদ্দ বছরে পদার্পণ, বেতনের জন্যও কেঁদেছি : রাসেল ইব্রাহীম

।।।মোঃ আলী আক্কাস তালুকদার (অবঃ) সেনা কর্মকর্তা।।। আপনি কি নেতা হতে চান? নেতা উপাদী পেতে চান? খুব ... Details

বিশ্বজুড়ে মহামারী করোনা ভাইরাস’র আর্বিভাব! > মোঃ আলী আক্কাস তালুকদার

।।।মোঃ আলী আক্কাস তালুকদার (অবঃ) সেনা কর্মকর্তা।।। আপনি কি নেতা হতে চান? নেতা উপাদী পেতে চান? খুব ... Details

রাশিফল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

 প্রতিষ্ঠাতা ও প্রকাশক : মোঃ সাইফুল ইসলাম
 প্রধান সম্পাদক : মোহাম্মদ আব্দুল হাই
 সম্পাদক : মোঃ ইয়াছিন তালুকদার

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয় : ১২৭ মতিঝিল বা/এ ,মাকসুম ম্যানশন ৫ম তলা, ঢাকা-১০০০
ফোন: +88 01817-512712, +88 01818-485606
ইমেইলঃ bdpnews2017@gmail.com (সেন্ট্রাল)
কপিরাইট © 2021 bdpnews24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত